সর্বশেষ

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে যে ৫ সেটিংস অবশ্যই বদলাবেন

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে যে ৫ সেটিংস অবশ্যই বদলাবেনঅ্যান্ড্রয়েডচালিত মোবাইল ফোন প্রথমবারের মতো যাঁরা ব্যবহার করছেন বা পুরোনো ফোন থেকে নতুন ফোনে হালনাগাদ করেছেন, তাঁদের মোবাইলের পাঁচটি সেটিংস পরিবর্তন করা প্রয়োজন। এতে ফোনের পারফরমেন্স ও ব্যাটারির আয়ু বাড়ে।
১. ফোনের ব্রাইটনেস কমিয়ে দিন
অঙ্কটি সোজা। যত বেশি ব্রাইটনেস বা উজ্জ্বলতা থাকবে, তত দ্রুত চার্জ ফুরাবে। এ জন্য সেটিংসে গিয়ে ব্রাইটনেস কমিয়ে দিন। ৫০ শতাংশের নিচে তা রাখুন।
২. হোয়াইটনেস কমান
আপনার ফোনটি কি অ্যামোলেড স্ক্রিনের? যদি তা-ই হয়, তবে ওয়ালপেপার সেট করার বিষয়ে সচেতন থাকুন। কালো রঙের ওয়ালপেপার সেট করুন। কারণ, কালো পিক্সেল জ্বালাতে চার্জ ফুরাবে না।
বিভিন্ন মডেলের ফোন ও অপারেটিং সিস্টেমে ওয়ালপেপার সেটিংসের অবস্থান ভিন্ন হতে পারে। তবে অধিকাংশ ডিভাইসে হোম স্ক্রিনের কোনো ফাঁকা জায়গায় ট্যাপ করে রাখলে মেনু থেকে ওয়ালপেপার সেট করা যায়।
৩. নতুন অ্যাপ শর্টকাট বন্ধ করুন
গুগল প্লে স্টোর থেকে নতুন অ্যাপ ডাউনলোড করার সময় শর্টকাট আইকন তৈরি হয় হোমস্ক্রিনে। গুগল প্লে অ্যাপের মেনু থেকে সেটিংসে গিয়ে শর্টকাট বন্ধ করে দিতে পারেন।
৪. ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ চালু করুন
ঘুম বা আরামের সময় ফোনকল, মেসেজ বা অ্যালার্ট সিস্টেম সাইলেন্ট করে রাখুন। অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ মোড নামের একটি মোড আছে, যা সেট করে রাখলে বিরক্তি আসবে না। সেটিংসে গিয়ে সাউন্ডস সেটিংসে এ ফিচার চালু করতে পারেন।
৫. ফাইন্ড মাই মোবাইল
অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের জন্য আরেকটি দরকারি সেটিংস হচ্ছে ফাইন্ড মাই মোবাইল। ফোন হারানো বা ভুলে ফেলে এলে এ ফিচারটি কাজে লাগতে পারে। থার্ড পার্টির অ্যাপ ব্যবহার করে কিংবা বিল্ট ইন অপশন ব্যবহার করে এটি ব্যবহার করা যায়। গুগল সেটিংস থেকে এটি চালু করা যায়।

(Visited 1 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*