সর্বশেষ

আ.লীগের গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আসছে

 

আ.লীগের গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন আসছে -আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত গঠনতন্ত্র উপকমিটির সভায় আজ বৃহস্পতিবার এমন ইঙ্গিত মিলেছে।দলীয় সভাপতির ক্ষমতা বৃদ্ধি; যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি সম্পাদকের মতো পদ সংযোজনসহ নানা পরিবর্তন আসছে আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রে।
সভায় আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র উপকমিটির সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সভানেত্রী বিশ্বের রাজনীতিতে অত্যন্ত শক্তিশালী গণতান্ত্রিক ব্যক্তিত্ব। সুতরাং আমাদের গঠনতন্ত্রের ঘোষণাপত্রে এর প্রতিফলন থাকবে। আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ ও স্বাধীনতার ঘোষণা অন্তর্ভুক্তির প্রস্তাব দেন তিনি।’
সভার শুরুতে গঠনতন্ত্র উপকমিটির আহ্বায়ক আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘কিছুদিন আগেও ইউনিয়ন, পৌরসভা নির্বাচন নির্দলীয় হতো। এখন এগুলো দলীয় ভিত্তিতে করা হচ্ছে। কিন্তু আমাদের গঠনতন্ত্রে এই নির্বাচনটি পরিচালনা করার বিষয়ে সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ নেই। জাতীয় সংসদ সদস্য প্রার্থী বাছাই করতে আমাদের সংসদীয় বোর্ড আছে। আমরা ওই কমিটি একটু বাড়িয়ে ইউনিয়ন ও পৌরসভার প্রার্থীদের বাছাই করেছি। এটা একটা অন্তর্বর্তীকালীন ব্যবস্থা ছিল। ভবিষ্যতে এটা আমরা কীভাবে করব, সেটা গঠনতন্ত্রে আসবে।’
রাজ্জাক বলেন, নতুন দু-একটি বিভাগ হয়েছে, ‘সেগুলোতে সাংগঠনিক সম্পাদক পদ সৃষ্টি করা হতে পারে। জনসংখ্যার আনুপাতিক বিবেচনায় সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদ বাড়বে কি না, সে বিষয়ে আলাপ হবে। আমাদের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক রয়েছেন। এখন কথা উঠেছে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি সম্পাদক করার বিষয়ে।’ তিনি বলেন, ‘আমরা একটা সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব কাউন্সিলে পেশ করব। সেখানেও অনেক সদস্য প্রস্তাব দেওয়ার সুযোগ পাবেন। সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক থাকবেন। আর সেখানেই গঠন চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে।’
আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘গঠনতন্ত্র সংশোধনের জন্য দেশের সব জেলা, উপজেলা, থানা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। আগামীকাল ওই চিঠির জবাব দেওয়ার শেষ সময়। কেউ কেউ টেলিফোনেও আমাদের অনেক পরামর্শ দিয়েছেন। এখনো সুনির্দিষ্ট কোনো সংশোধনীর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি।’
গঠনতন্ত্র উপকমিটির সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য আবদুর রহমান, র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, সুজিত রায় নন্দী, সাংসদ ফজলে নূর তাপস প্রমুখ।

bangladesh awemeleague

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*