সর্বশেষ

দারুন ধারাবাহিকতায় ফাইনালে বাংলাদেশ

দারুন ধারাবাহিকতায় ফাইনালে বাংলাদেশ

আয়ারল্যান্ডে তিনজাতি ক্রিকেটে দ্বিতীয় মোকাবেলায়ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হেসেখেলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। চলতি টুর্নামেন্টে দ্বিতীয়বারের মতো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে বাংলাদেশ উঠে এল ফাইনালে। আগামী ১৭ মে’র ফাইনালেও বাংলাদেশ প্রতিপক্ষ হিসেবে আরেকবার ওয়েস্ট ইন্ডিজকেই পাচ্ছে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২৪৭ রানের স্কোর বাংলাদেশ যে কায়দায় টপকে গেল তাকে বলে ক্লিনিক্যাল ফিনিশ। দুই ওপেনার তামিম ও সৌম্যের তৈরি করা শক্ত ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে সাকিব দলের ইনিংসকে তিন অংকের ওপরে পৌঁছে দেন। চতুর্থ উইকেট জুটিতে মুশফিক ও মিঠুনের দাপুটে ব্যাটিং এই ম্যাচে বাংলাদেশের জয়ের পথ সহজ করে দেয়। দুজনে যেভাবে খেলছিলেন তাতে মনে হচ্ছিল এরাই ম্যাচ শেষ করে ফিরবেন।

কিন্তু দুই ছক্কা ও দুই বাউন্ডারিতে মোহাম্মদ মিঠুন ৫৩ বলে ৪৩ রান করে হোল্ডারের বলে বোল্ড হলে মাহমুদউল্লাহও টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মতো ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেলেন। ভাগ্যকেও সঙ্গে নিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। ব্যক্তিগত ৬ রানে উইকেটের পেছনে সহজ ক্যাচ দিয়েও রক্ষা পেলেন সেই ভাগ্যের কল্যাণেই! মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর জুটিতেই ম্যাচ জয়ের পথে ছিল বাংলাদেশ। জয় থেকে ৮ রান দুরে থাকতে মুশফিক ফিরলেন ৬৩ রান করে। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে বাকি আনুষ্ঠানিকতা পুরো করেন সাব্বির রহমান। ১৬ বল হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ ৫ উইকেটে।

বাংলাদেশের তৃতীয় উইকেটে মুশফিক ও মিঠুনের জুটিতে এল ৮৭ রান। ৭৩ বলে ৬৩ রান নিয়ে মুশফিক এই ম্যাচের ফিনিশার।

আজকের খেলায় উভয় দলের স্পিনাররা দাপট দেখালেন। তবে এমন উইকেটের ব্যবহার কিভাবে সবচেয়ে ভালো করতে হয়- সেই পরীক্ষায় বাকি সবাইকে ছাড়িয়ে গেলেন মুস্তাফিজুর রহমান ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। এই দুজন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিংহভাগ উইকেট শিকার করলেন। আর সাকিব আল আটকে দিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের রানের চাকা। সাকিবের বোলিং বিশ্লেষণ সত্যিকার অর্থেই বাঁধিয়ে রাখার মতোই! শুরুর ৭ ওভারে মাত্র ১২ রান খরচ। ম্যাচে ১০-১-২৭-১!

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ২৪৭/৯ (৫০ ওভারে, হোপ ৮৫, চেজ ১৯, হোল্ডার ৬২, মুস্তাফিজুর ৪/৪৩, মাশরাফি ৩/৬০, সাকিব ১/২৭, মিরাজ ১/৪১, রাহী ০/৫৬)। বাংলাদেশ: ২৪৮/৫ (৪৭.২ ওভারে, তামিম ২১, সৌম্য ৫৪, সাকিব ২৯, মুশফিক ৬৩, মিঠুন ৪৩, মাহমুদউল্লাহ ৩০*, নার্স ৩/৫৩)। ফল: বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী। ম্যাচসেরা: মুস্তাফিজ।

(Visited 1 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*