সর্বশেষ

সাউথ এশিয়া এলপিজি সামিটে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে জেএমআই এলপিজি

সাউথ এশিয়া এলপিজি সামিটে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে জেএমআই এলপিজি

“সাউথ এশিয়া এলপিজি সামিট ২০১৯” এর উদ্বোধন হয়ে গেলগতকাল। রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন হলে দুদিনব্যাপী এই সম্মেলন এবং প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর তিনি বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি জেএমআই এলপিজির স্টলে যান এবং আমন্ত্রিত অন্যান্য অতিথিদের নিজেই জেএমআই সম্পর্কে কথা বলেন। তিনি তার বক্তব্যে বারবার এলপিজি সেক্টরে জেএমআই এর আগমণে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।  তিনি বলেন, আমি গতমাসে জেএমআই গ্রুপের একটি প্রোগ্রামে যেয়ে জানতে পারি তারা খুব বৃহৎ পরিসরে এই সেক্টরে কাজ করছে। শুধু এলপিজিই নয় তারা ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজের পণ্যগুলোও তৈরি করবে। আমি আশাবাদী তারা অনেক ভাল করবে। তিনি জেএমআই এলপিজির জন্য শুভ কামনা জানিয়ে পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

মুলত মন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর সামিটে আগত দেশি-বিদেশী দর্শনার্থীদে আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসে জেএমআই এলপিজি। স্টলে আগত দর্শনার্থীদের বিভিন্ন প্রযুক্তি ও তার ব্যবহার সম্পর্কে ধারনা দিচ্ছেন  জেএমআই এলপিজির জি,এম ও প্রধান বিপনন কর্মকর্তা সরদার জাহাঙ্গীর আলম। রয়েছে জেএমআই এলপিজির বিশেষ টিম।

উল্লেখ্য, সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে এটি। দুদিনব্যাপী এই সম্মেলন ও প্রশিক্ষণ কর্মসূচীতে প্রায় ২০০ বিদেশী প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন। সম্মেলনে ৮০ টির বেশি স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান তাদের এলপিজি সম্পর্কিত সর্বশেষ প্রযুক্তি ও তথ্য উপস্থাপন করবেন। এশিয়া্ন এলপিজি শিল্প উন্নয়ন ও নিরাপদ করার লক্ষ্যে বিনিয়োগকারী, বিশেষজ্ঞ ও বিখ্যাত শিল্প প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নেবে বলে জানান আয়োজকরা। ৪ মার্চ সন্ধ্যা ৬ টায় ওয়ার্ল্ড এলপিজি এ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক ডেভিট টেইলরের সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে দুদিনব্যাপী সম্মেলেনর সমাপ্তি হবে।

এই সম্মেলন আয়োজনে সহযোগিতায় করেছে বিদ্যুত, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় এবং এলপিজি অপারেটর এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*